একটি আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা যাবে

0

সম্প্রতি অনেকেই একটা এসএমএস পেয়েছেন মোবাইল এর মাধ্যমে। যেটা BTRC কর্তৃপক্ষ থেকে দেয়া হয়েছিল। অর্থাৎ এখন পর্যন্ত যারা তাদের ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে 15 টির বেশী অতিরিক্ত সিম রেজিস্ট্রেশন করেছেন তাদের অতিরিক্ত সিম গুলো 15 ই অক্টোবর 2022 এর পরে বাতিল করা হবে। এমতাবস্থায় আপনার কি করণীয় ? কিভাবে আপনার সিম গুলো চালু রাখবেন সম্পূর্ণ বিষয় আলোচনা করব।

একটি আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা যাবে

আপনি যদি আপনার 15 টির বেশী অতিরিক্ত রেজিস্টার সিমগুলো সচল রাখতে চান তাহলে কয়েকটি ধাপে আপনাকে কাজ করে যেতে হবে। অর্থাৎ বিটিআরসির নির্দেশনা অ8নুযায়ী আপনাকে আপনার সিম গুলো অন্য আইডি কার্ডের মালিকানায় পরিবর্তন করতে হবে। অনেকেই 20 থেকে 25 টা সিম রেজিস্টার করে ফেলেছে।

আবার দেখা যায় আমরা রিটেইলার এর দোকান থেকে রেজিস্টার কৃত সিম ক্রয় করে ব্যবহার করি অথচ আমরা নিজেরাও জানিনা উক্ত সিম গুলো কার নামে রেজিস্টার করা। হতে পারে আপনার সিমটি অতিরিক্ত সিম গুলোর মধ্যে একটি। তাই সময় থাকতে আপনার সিম টি ব্যবহার করা বন্ধ করুন কারন আপনার হাতে থাকা সিমটি রেজিস্ট্রেশন পরিবর্তন করতে হলে যার নামে সিম রেজিস্টার করা তার বায়োমেট্রিক তথ্যের দরকার পড়বে।

একটি আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা যাবে

আপনার NID অথবা স্মার্ট আইডি কার্ড দিয়ে সব অপারেটর মিলিয়ে সর্বোচ্চ ১৫ টা সিম রেজিস্টার করতে পারবেন। অতিরিক্ত রেজিস্টার করা সিমগুলো ১৫ ই অক্টোবর ২০২২ এর পরে বাতিল করা হবে। অতিরিক্ত সিমগুলো সচল রাখতে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করুন।

আমার আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন হয়েছে?

এটি জানার জন্য মোবাইলের মেসেজ অপশন থেকে ডায়াল করুন *১৬০০১# । এরপরে নিবন্ধিত সিমের সংখ্যা জানতে এনআইডি কার্ডের শেষ ৪ ডিজিট প্রদান করুন। ফিরতি মেসেজে উক্ত ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন হয়েছে এটি জানা যাবে।

অনেক সময় দেখা যায় আমরা আমাদের ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে অনেকগুলো সিম নিবন্ধন করে ফেলি আমাদের জানা-অজানায়। অনেক সময় পরিবারে প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক না থাকায় একজনের ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে অনেক জনে ভোটার আইডি কার্ড নিবন্ধন করে থাকে।

এমতাবস্থায় যখন ১৫ টির বেশি সিম আপনি রেজিস্টার করে ফেলেন তখন অতিরিক্ত সিম গুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এবং শেষ অবধি BTRC এমন একটি নোটিশ দিয়েছে যে অতিরিক্ত সিম গুলো মালিকানা পরিবর্তন না করলে বন্ধ করে দেওয়া হবে।

তাই কিভাবে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করবেন বা অতিরিক্ত সিমগুলো নিবন্ধন বাতিল করবেন তা আমাদের জানা প্রয়োজন

সিম রেজিস্ট্রেশন পরিবর্তন করার সঠিক নিয়ম

যেই সিম রেজিস্ট্রেশন পরিবর্তন করতে চান সেই সিম সহ রেজিস্টার কৃত ব্যক্তি এবং যার নামে মালিকানা পরিবর্তন করতে চান উভয় ব্যক্তিকে সিম অপারেটরের নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ারে গিয়ে উপস্থিত হতে হবে।

উভয় ব্যক্তিকে বায়োমেট্রিক তথ্য প্রদান করতে হবে এরপরে সিম কতৃপক্ষ সিম রেজিস্ট্রেশন পরিবর্তন করে দেবে। সিম রেজিস্ট্রেশন পরিবর্তন করার জন্য অবশ্যই উভয় ব্যক্তিকে প্রয়োজনীয় কিছু ডকুমেন্ট সাথে করে নিয়ে যেতে হবে।

সিম রেজিস্ট্রেশন পরিবর্তন এর জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট
যার নামে সিম রেজিস্ট্রেশন করা তার, ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং জাতীয় পরিচয় পত্রের অরজিনাল কপি ও ১ কপি ফটো কপি।

যার নামে সিম রেজিস্ট্রেশন পরিবর্তন করতে চান তার সদ্যতোলা দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, ভোটার আইডি কার্ড অরিজিনাল কপি এবং এক কপি ফটোকপি, এবং অতিরিক্ত ২০০ টাকা।

উক্ত ডকুমেন্টসহ ওই ব্যক্তিকে নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে গিয়ে বায়োমেট্রিক তথ্য প্রদান করতে হবে এবং তথ্য প্রদান করার মাধ্যমে আপনার সিমটি অন্য আরেকজনের নামে মালিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন।

আপনি যদি চান যে আপনার সিম গুলো মালিকানা পরিবর্তন না করে সিম নিবন্ধন গুলো বাতিল করে দিতে তাহলে সিম নিবন্ধন বাতিল করা নিয়ে আমাদের অলরেডি একটি আর্টিকেল লেখা রয়েছে আপনি চাইলে সেটি পড়তে পারেন। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.