ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করার উপায় 2022

0

আপনি যদি ফেসবুক গ্রুপ থেকে টাকা আয় বা ইনকাম করতে চান তাহলে আজকের পোস্ট টি আপনার জন্য৷

  • কিভাবে ফেসবুক গ্রুপ থেকে টাকা আয় করবেন অথবা
  • ফেসবুক গ্রুপ থেকে টাকা ইনকাম

    করার উপায়।

 

ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয়

 

আসসালামুয়ালাইকুম,

আমরা জানি  ইতিপূর্বে ফেসবুক পেজ থেকে ইনকাম করা যেত কিন্তু বর্তমানে ফেসবুক গ্রুপ থেকে ইনকাম করার ও সুযোগ রয়েছে আগে বিভিন্ন ধরনের ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল বা বিভিন্ন ধরনের স্পন্সরদের দিয়ে ইনকাম করা যেতো ফেসবুক পেজ দিয়ে তাছাড়া আপনি একটা ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করে যেখানে এড বসিয়ে সেই লিঙ্ক আপনার পেজ পাবলিশ করে একটা মোটা অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন

কিন্তু এখন প্রশ্ন হচ্ছে কিভাবে ফেসবুক গ্রুপ দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন?

ফেসবুক গ্রুপ থেকে ইনকাম এই শব্দটির সাথে হয়তো অনেকেই পরিচিত বা অনেকেই অপরিচিত। কিন্তু কিভাবে ইনকাম করা যায় সেই বিষয়টি অনেকের কাছে অপরিচিত। অনেকে ফেসবুক গ্রুপ ক্রিয়েট করে শুধুমাত্র পপুলারিটি বাড়ানোর জন্য।  আবার এই থেকে একটা সময় অনেকেই তাদের টাকা ইনকামের চিন্তা-ভাবনা করে থাকেন। তো আজকের আলোচনার বিষয় আপনি কিভাবে আপনার ফেসবুক গ্রুপ থেকে ইনকাম করতে পারবেন। দেখে নিন কোন কোন উপায়ে আয় করতে পারবেনঃ

  • স্পন্সর ব্যাবহার করে
  • স্পন্সর লিংক শেয়ারিং
  • ফেসবুক ব্রান্ড কলাভস মনিটাইজ
  • পার পোস্ট ডিমান্ড চার্জ
Sponsor Logo

*Photo: Picpedia

১.স্পন্সরঃ

স্পন্সর শব্দটির সাথে আমরা অনেকেই পরিচিত. স্পন্সর মানেই আপনার কোন ইভেন্ট কোন কোম্পানি সেটার একটা দায়িত্ব নিল একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিয়ে আপনাকে যাতে তার কোম্পানিতে প্রচার বারে।তো আপনার যদি  অধিক ফেসবুক গ্রুপ থাকে এবং ফেসবুকে গ্রুপে অধিক পরিমাণে মেম্বার থাকে তাহলে আপনি গ্রুপের জন্য স্পন্সর নিতে পারবেন আর। অন্যদিকে আপনার গ্রুপ অ্যাক্টিভিটি বেশি থাকলেই অনেক প্রতিষ্ঠানে নিজে এসে বলবে স্পন্সর হওয়ার জম্য, যাতে তার কোম্পানির ব্যাবসায়িক প্রচারনা বৃদ্ধি পায়। আপনার গ্রুপের পিন পোস্ট অথবা যেকোনো পোস্টে তার কোম্পানির নাম লোগো বা ওয়েবসাইট এড্রেস থাকবে যার বিনিময়ে সে আপনাকে একটি নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ প্রদান  করবে।  যেমন আপনার গ্রুপের কভার ফটোর জন্য একটা স্পন্সর নিতে পারেন সেখানে ফটোতে স্পন্সর কোম্পানির নাম এবং লোগো থাকবে এবং পাবলিক যখন আপনার গ্রুপে প্রবেশ করবে তখন সেই কোম্পানি সম্পর্কে জানবে এবং এতে সেই কোম্পানির প্রচার বাড়বে এতে আপনি মোটা অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

 

২.লিংক শেয়ারিং।

 

আপনার যদি একটা ওয়েবসাইট থাকে যেমন ব্লগসাইট মুভি সাইট, নিউজপোর্টাল ইত্যাদি ইত্যাদি তাহলে সেই ওয়েবসাইটে অ্যাডভার্টিসমেন্ট করে প্রত্যেকটা ব্লগের লিংক আপনার গ্রুপে পোস্ট শেয়ার করবেন এতে করে পাবলিক খুব সহজে আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবে এবং আপনার ব্লগে তারা এড দেখতে পাবে যার বিনিময়ে আপনি এড কোম্পানি থেকে টাকা নিতে পারবেন। তবে এ ক্ষেত্রে আপনাকে ফেসবুক স্প্যামজনিত সমস্যা বেশি হতে পারে, কিন্তু সাবধানতার সাহিত অল্প অল্প লিংক পোস্ট করবেন৷ আর অবশ্যই ব্লগে ভালো কোন আর্টিকেল লিখবেন যাতে পাবলিক কৌতুহলি হয় আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে।

 

৩.ফেসবুক ব্র্যান্ড কলাবস

এটি হলো ফেসবুক স্বীকৃত ফেসবুকের নিজস্ব একটি প্ল্যাটফর্ম সেখানে ফেসবুক পেইজ বা ফেসবুক গ্রুপ কে দুটি মনিটাইজ করা যায়। আর ফেসবুক গ্রুপ মনিটাইজ করার জন্য সেখানে আপনার শর্ত সাপেক্ষে এক হাজারের অধিক মেম্বার থাকা বাধ্যতামূলক এবং কমপক্ষে এক হাজার মেম্বার হলেই আপনি ফেসবুক ব্রান্ড কলাবস ম্যানেজার গিয়ে আপনার ফেসবুক গ্রুপ থেকে মনিটাইজ করার জন্য আবেদন করতে পারবেন আর ফেসবুক ব্রান্ড ক্লাবের মাধ্যমে ফেসবুক একটি নির্দিষ্ট কোম্পানির সাথে চুক্তি করে আপনার গ্রুপে পার্টনার প্রোগ্রামে জয়েন হয় যার কারণে সেখান থেকে ব্র্যান্ড কোম্পানি কোন ফেসবুকে কিছু অর্থ দেয় এবং সেটা দ্বারা আপনি কিছু অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। কিভাবে এই ব্রান্ড কলাবসে আপনার গ্রুপ নিয়ে আবেদন করবেন তা জানতে হলে

আরো পড়তে পারেনঃ ফেসবুক গ্রুপ মনিটাইজ করে ডলার আয় করুন।

৪.রিভিউ পোস্টে ডিমান্ড চার্জ

 

রিভিউ পোস্ট ডিমান্ড চার্জ এটাও স্পন্সরের একটি ধাপ যখন আপনার একটা নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির ভিত্তিতে গ্রুপ হবে তখন ওইসব ক্যাটাগরির বিভিন্ন কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানের চুক্তিবদ্ধ হবে আপনার গ্রুপের সাথে যাতে আপনার গ্রুপে একটা পোস্টে তার কোম্পানির ভালো দিকগুলো উল্লেখ থাকে। মানুষ যাতে পজিটিভ ভাবে নেয় কম্পানি গুলো।  বলা যেতে পারে ফুড রিভিউ একটা গ্রুপের কথা এই গ্রুপ সম্পর্কে মানুষ অধিক আগ্রহী হয় এসব গ্রুপের একটিভিটি অনেক বেশি থাকে আর এই কাটা গ্রুপের কাজ হচ্ছে বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট বা বিভিন্ন দোকানের আইটেম খাবারের রিভিউ করা ও রেটিং দেওয়া। খাদক মানুষ সবসময়ই খুঁজে ভালো কোন রেস্টুরেন্টে খাবারের যার কারণে তারা এইসব গ্রুপের পোস্টগুলো বেশি বেশি করে ফলো করে। আর প্রত্যেক রেস্টুরেন্টের মালিক ই চায় সব জায়গায় তাদের ফুড বা কোম্পানি নিয়ে সবাই ভালো একটা রিভিউ, যাতে  তাদের ব্যবসার প্রসার বাড়ে।   আর এই ভালো রিভিউ প্রকাশ করার জন্য তারা আপনার গ্রুপ টার্গেট করতে পারে এবং যেখানে তারা তাদের কোম্পানির ভালো একটি দিক সবার কাছে প্রকাশ করার জন্য বলতে পারে বিনিময়ে আপনি কিছু অর্থ প্রদানের লোভ দেখাতে পারে।

 

নতবা আপনি একেকটা কোম্পানির কাছে আবদার করতে পারেন যে আপনি একটা নির্দিস্ট চার্জের বিনিময়ে তার কোম্পানির রিভিউ করে দিবেন৷ এভাবে আপনি প্রত্যেকটা রিভিউ পোস্ট একটা কোম্পানির কাছ থেকে ডিমান্ড চার্জ করে অনেক টাকা আয় করতে পারেন।

 

আমাদের টিপস এন্ড ট্রিক্স আপনাদের কাছে কেমন লাগে তা কমেন্টে জানিয়ে দিবেন। ভুল ত্রুটি মার্জনা করে দেখবেন৷ আমরা যা শেয়ার করি সবগুলো আমরা ব্যাক্তিগত চিন্তাভাবনায় প্রকাশ করি। ভালো লাগলে ইমেল সাবসক্রাইব করবেন

Leave A Reply

Your email address will not be published.